প্রচ্ছদ >> প্রযুক্তি

কুয়েট শিক্ষার্থীদের নতুন মিটার উদ্ভাবন

খুলনা: এবার এসএমএস এর মাধ্যমে বিদ্যুৎ নিয়ন্ত্রন করা যাবে। খুলনা প্রকৌশলী ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা উদ্ভাবন করেছে এমনই এক যন্ত্র। যার নাম দিয়েছে ইউনিভার্সাল স্মার্ট এনার্জি মিটার (ইউএসইএম)। এর মাধ্যমে মোবাইলের এসএমএস করেই নিয়ন্ত্রণ করা যাবে বিদ্যুৎ। দরকার হবে না আইপিএস, জেনারেটর ও ব্যাটারির। এ মিটার ব্যবহার করলে ২৪ ঘণ্টা বিদ্যুৎ সুবিধা পাবে গ্রাহকরা।

দেশের আবাসিক অঞ্চলের জন্য মিটারটি অভাবনীয় সাফল্য ধরে রাখবে বলে দাবি উদ্ভাবক টিমের। এছাড়া মিটারটির মাধ্যমে ডিস্ট্রিবিউশনকারী প্রতিষ্ঠান প্রি-পেইড ও পোস্ট-পেইড দুটি সবিধা পাবে। ভুতুড়ে বিল থেকে মুক্তি পাবে গ্রাহকরা। সরকারের বিদ্যুৎ চুরি রোধে রাখবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। ডিস্ট্রিবিউশন থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করার সময় মাঠ পর্যায়ে চুরি হচ্ছে কি-না কন্ট্রোল রুমের মধ্য থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। মিটারের ডিসপ্লের মাধ্যমে গ্রাহকরা তাদের চাহিদা মতো বিদ্যুৎ পাচ্ছে কিনা জানতে পারবেন। এমনকি বিদ্যুৎ চুরি করার চেষ্টা করলে মোবাইলের এসএমএসের মাধ্যমে কন্ট্রোল রুমে মেসেজ পৌঁছে যাবে।

দেশে সর্বপ্রথম এ ধরনের ব্যতিক্রমধর্মী মিটার উদ্ভাবন করার কাজ শুরু হয়েছিল ২০১১ সালে। কুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র মাসুম বিল্লাহ ও লাবীব এবং যন্ত্রকৌশল বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র জিএম সুলতান মাহমুদ রানা মিটারটির উদ্ভাবনের কাজ শুরু করে। এ সময় সার্বিক সহযোগিতা করেন তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল বিভাগের প্রফেসর ড. মোঃ রফিকুল ইসলাম। উদ্ভাবক টিমের সদস্যরা জানান, এ মিটারের মাধ্যমে দেশের আবাসিক এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়া রোধ হবে। ২৪ ঘণ্টা গ্রাহকরা বিদ্যুতের সুযোগ পাবে। কারণ এ মিটারের মাধ্যমে নির্দিষ্ট সময়ে বিদ্যুৎকে বিভিন্ন সেন্সর দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। বাণিজ্যিকভাবে সরকার মিটারটির বাস্তবায়ন ঘটালে দেশের বিদ্যুতের সমস্যা দূরসহ বিদ্যুৎ খাতে বছরে প্রায় ৩৫ কোটি টাকা টেকনিক্যাল ও নন-টেকনিক্যাল ক্ষতি দূর করা সম্ভব হবে।

ইউএসইএম মিটার: মিটারটিতে একটা ট্রান্সফরমারের মাধ্যমে ভোল্টেজে আরেকটা কারেন্ট সেন্সরের মাধ্যমে কারেন্ট পরিমাপ করে একটা মাইক্রোকন্ট্রোলারের মাধ্যমে সেই মানগুলো নিয়ে পাওয়ার পরিমাপ করা হয়। আর একটা ডিসপ্লের মাধ্যমে সেই মানগুলো দেখানো হয়। ডিসপ্লেতে থাকছে ইউনিট, ব্যালেন্স (টাকা), ভোল্টেজ, পাওয়ার ফ্যাক্টর। আর সেখানে ব্যবহার করা হয়েছে একটা জিএসএম মডিউল যার মাধ্যমে এই এনার্জি মিটারের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ ম্যাসেজের মাধ্যমে যে কোনো জায়গা থেকে করা যায়। মিটারের নতুনত্ব হলো এসএমএসের মাধ্যমে যে কোনো অপশন আবার কনফিগার করা যায়। একই মিটারে প্রিপেইড এবং পোস্টপেইড সুবিধা এই প্রথম।



FacebookMySpaceTwitterDiggDeliciousStumbleuponGoogle BookmarksRedditNewsvineTechnoratiLinkedinMixxRSS FeedPinterest
Pin It

ফোরজি লং টার্ম ইভোলুশন নেটওয়ার্ক চালু হয়েছে ৯৭টি দেশে

প্রযুক্তি-1 |  বুধবার, 22 জানুয়ারী 2014
বাণিজ্যিকভাবে বিশ্বের ৯৭টি দেশে ফোরজি লং টার্ম ইভোলুশন ...
Read More

জাতীয়করণ হলো দেশের ২২ হাজার ৯২৫ প্রাইমারী স্কুল

সম্পাদকীয় |  রবিবার, 14 জুলাই 2013
দেশের ২২ হাজার ৯২৫টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়...
Read More

পাওয়ার ভয়েজের কর্ণিয়া

সম্পাদকীয় |  সোমবার, 15 জুলাই 2013
গান শেখার শুরু সেই ছোটবেলা মায়ের পাশে বসে হারমোনিয়ামে স...
Read More

বর্তমানের ১৪ সংবাদকর্মীকে ছাঁটাই

মুক্তমত-1 |  রবিবার, 08 সেপ্টেম্বর 2013
নিজস্ব প্রতিনিধি: দৈনিক বর্তমান পত্রিকা বাজারে আসার দুই...
Read More

কর্মক্ষেত্রে স্মার্ট হোন

লাইফস্টাইল -1 |  সোমবার, 19 আগস্ট 2013
ঢাকা : জীবনে সফল হওয়ার জন্য স্মার্টনেস খুবই দরকারি৷ কিন...
Read More

মোবাইলে বিবিসি বাংলা

প্রযুক্তি-1 |  সোমবার, 09 সেপ্টেম্বর 2013
ঢাকা: বিবিসি বাংলা এখন আপনার হাতের মুঠোয়। যেকোন সময় বাং...
Read More
এই বিভাগের সর্বশেষ আপডেট