প্রচ্ছদ >> সম্পাদকীয়

উত্তরে নদীর পানি বাড়ছে

আলফা নিউজ ডেস্ক:রোববার ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বিপদসীমার তিন সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান। তিনি বলেন, পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে জেলার ফুলছড়ি ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় নদী ভাঙন শুরু হয়েছে। পাউবোর তথ্য অনুযায়ী, রোববার ঘাঘট নদীর পানি গাইবান্ধা শহররক্ষা বাঁধ পয়েন্টে ২৩ সেন্টিমিটার, করতোয়া গোবিন্দগঞ্জের কাটাখালী পয়েন্টে ১৭৪ সেন্টিমিটার ও তিস্তা সুন্দরগঞ্জের গোয়ালের ঘাট পয়েন্টে ১২৯ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। নদ-নদীগুলোতে পানি আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন প্রকৌশলী মাহবুবুর। সুন্দরগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নুরুন্নবী সরকার বলেন, পানি বৃদ্ধির ফলে নিম্নাঞ্চলের অনেক পথঘাট ডুবে গেছে। “গত দুই সপ্তাহে উপজেলার কাপাসিয়া, হরিপুর, বেলকা ও চণ্ডিপুর ইউনিয়নে ৫৭৫ পরিবারের ঘরবাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।” ফুলছড়ি উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শহীদুজ্জামান শামীম বলেন, এরইমধ্যে চরাঞ্চলের ধানের বীজতলা ও সবজি ক্ষেত তলিয়ে গেছে। ইতিমধ্যে উপজেলার কঞ্চিপাড়া, ফজলুপুর ও গজারিয়া ইউনিয়নের নদী ভাঙনে ২০০ পরিবার আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছে বলে এই কর্মকর্তা জানান।বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
2019-11-24-10-38-36আলফা নিউজ ডেস্ক:তিনি বলেছেন, “আমাদের সবাইকে এ কথাটা মনে রাখতে হবে- ভোগে নয় ত্যাগেই হচ্ছে মহত্ব। কী পেলাম কী পেলাম না, সে চিন্তা না। “কতটুকু মানুষকে দিতে পারলাম, কতটুকু মানুষের জন্য করতে পারলাম, কতটুকু মানুষের কল্যাণে কাজ করলাম, সেটাই হবে রাজনীতিবিদের চিন্তা-ভাবনা। আমাদের যুব সমাজকে আমরা সেভাবে গড়ে তুলতে চাই।” শনিবার ঢাকার...
     
 
এই বিভাগের সর্বশেষ আপডেট